বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের (পুরুষ) খেলোয়াড় তাসকিন আহমেদ বউ পিটিয়েছেন বলে একটা খবর ছড়িয়েছে কয়েকটা অনলাইন পোর্টাল। কিন্তু ঐ অনলাইন পোর্টাল এবং খবরের গোড়া ভরসা করার মতো নয়।

২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, “বউ পিটিয়েছেন তাসকিন” এবং “তাসকিনের বিরুদ্ধে বউ পেটাবার অভিযোগ”–এমন সব শিরোনামে কয়েকটা খবর ছড়িয়ে পড়ে কিছু অনলাইন পোর্টালের মারফতে।

https://radioghumti.com নামে একটা নিউজপোর্টাল “এবার বউ পেটালেন তাসকিন!” শিরোনামে খবর ছাপে ২৩ ফেব্রুয়ারি। খবরে দাবি করা হয়, “ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গেছে মারধোরের বিষয়টি আগে ততোটা প্রবল না হলেও ইদানীং মাঝে মাঝেই ঘটছে এমন ঘটনা।”

http://monitorbd.news/ ছাপে ২২ ফেব্রুয়ারি, শিরোনাম– “তাসকিনের বিরুদ্ধে বউ পেটানোর অভিযোগ!” এখানেও ‘ঘনিষ্ঠ সূত্র’-এর কথাই লেখা হয়,
“ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গেছে মারধোরের বিষয়টি আগে ততোটা প্রবল না হলেও ইদানীং মাঝে মাঝেই ঘটছে এমন ঘটনা।”

পেসার তাসকিন অভিযোগ অস্বীকার করে বলছেন, এগুলি ভিত্তিহীন, মিথ্যা। ২৩ ফেব্রুয়ারি ‘ডিবিসি নিউজ’ টিভি চ্যানেল তাসকিনের ইন্টারভিউ নেয়। ইন্টারভিউতে তাসকিনের বউ সায়েদা রাবেয়া না্ঈমাও যোগ দেন পরে। তাসকিন বলেন, “আমরা সবাই হাসলাম খবর পড়ে; কিন্তু হাইসা উড়াইয়া দিলেও এগুলি তো ঠিক না, হাসার মানে এই না যে, আমি লিগাল অ্যাকশন নিতে পারি না!”

তাসকিনের বউ সায়েদা রাবেয়া না্ঈমা বলেন, “তারা সুখেই আছেন; প্রাকটিস থেকে ফিরে বেচারা সারা রাত ঘুমাইতে পারে নাই, দেখে খারাপই লাগে।”।

people believing the video

তাসকিনকে নিয়ে গুজব রটানো অবশ্য এখানেই খতম হয় নাই! ইউটিউবে ভিডিও ছড়িয়ে পড়ে, সেখানে ভিডিও বানিয়ে দাবি করা হয়, “বিয়ের আগেই তাসকিন তার প্রেমিকাকে গর্ভবতী করেছেন।” ভিউয়ারদের কমেন্টে দেখা যায়, অনেকে বিশ্বাসও করছেন এইসব গুজব।

  • Read in English

Leave a Reply

fact-watch