সোমবার (১৫ অক্টোবর ২০১৮) রাত থেকেই সামাজিক ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত বঙ্গবন্ধুর জীবন নিয়ে হতে যাওয়া বায়োপিকের একটি কাস্টিং তালিকা। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এই কাস্টিং তালিকা অনুযায়ী বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করবেন অনির্বান, খোন্দকার মোশতাক চরিত্রে শহিদুজ্জাম সেলিম, জিয়াউর রহমান চরিত্রে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী এবং তাজউদ্দিনের চরিত্রে রুদ্রনীল।

সোমবার (১৫ অক্টোবর ২০১৮) রাত থেকেই সামাজিক ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত বঙ্গবন্ধুর জীবন নিয়ে হতে যাওয়া বায়োপিকের একটি কাস্টিং তালিকা। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া এই কাস্টিং তালিকা অনুযায়ী বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করবেন অনির্বান, খোন্দকার মোশতাক চরিত্রে শহিদুজ্জাম সেলিম, জিয়াউর রহমান চরিত্রে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী এবং তাজউদ্দিনের চরিত্রে রুদ্রনীল।

প্রথমবার অনুসন্ধান চালিয়ে অনলাইনে কোথাও বায়োপিকের কাস্টিং তালিকা প্রকাশ সংক্রান্ত কোনো সংবাদ খুঁজে পায়নি ফ্যাক্টওয়াচ দল। ফেসবুকে আবারও খোঁজ চালিয়ে দেখা গিয়েছে, পোস্টের মন্তব্যে এই কাস্টিং’কে কেউ কেউ “ফ্যান-মেড” বলে দাবি করায় বর্ণনা বদলে দিয়েছে আপলোডকারীরা।

উদাহরণস্বরূপ নিচের পোস্টটির কথাই বলা যায়। গতকাল রাত সোয়া এগারোটায় করা পোস্টের শেষ লাইন ছিলো প্রধান চরিত্রগুলো প্রায় নিশ্চিত।” কিন্তু পরবর্তীতে মন্তব্যকারীরা আপত্তি তুললে এগারোটা তেতাল্লিশ মিনিটে শেষ লাইন বদলে লিখে দেওয়া হয়, “কাস্টিং ফ্যানমেইড।”

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যেকোনো কিছু যাচাই-বাছাই ছাড়া ছড়িয়ে দেওয়াটা বর্তমানে বেশ সাধারণ একটা ব্যাপার হলেও আপলোডকারী দুয়েকজন বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাথে সংশ্লিষ্ট। তাদের কাছ থেকে এরকম আচরণ সত্যিই দুঃখজনক। গণমাধ্যমকর্মী বিধায় তাদের লেখা দেখে অনেকেই মনে করেছেন ব্যাপারটি সত্যি।

উল্লেখ্য, সাজিদ রাহাত নামে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী প্রথমবার লেখাটি “সিনেমাখোরদের আড্ডা” নামক একটি ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করেছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। সাজিদ রাহাত তার ফেসবুকে করা একটি পোস্টে লিখেছেন,

“বাংলাদেশ ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে নির্মিত হতে যাচ্ছে বঙ্গবন্ধুর জীবনীমূলক চলচ্চিত্র যার পরিচালনায় আছেন শ্যাম বেনেগাল। এই ছবিটি নিয়ে ইতোমধ্যে অনেক আলোচনা হয়েছে, হচ্ছে যে কে পর্দায় ফুটিয়ে তুলবেন বঙ্গবন্ধুর রোল। হিমালয়সম এই চরিত্র করার মত যোগ্য কেউ কি আদৌ আছে কি না। কিংবা বঙ্গবন্ধুর জীবনের কোন দিকটা এখানে পরিচালক আধৃত করবেন, ইতিহাসের সাথে কতখানি মিল থাকছে এসব।

ছবির কোন কিছুই এখনো চূড়ান্ত হয়নি। পরিচালক সবেমাত্র প্রাথমিক রিসার্চ শেষ করে বলেছেন শেখ মুজিবের চরিত্রের জন্য আমার রোগা কাউকে চাই। তার থেকে ধারণা করা যায় উনি বোধহয় বঙ্গবন্ধুর তরুণ, সংগ্রামী দিকটাকে পর্দায় বেশি রাখতে চাচ্ছেন।

যাই হোক, যেহেতু এটি পিরিয়ড ড্রামা আর সব ঐতিহাসিক চরিত্রে ঠাঁসা আমার পিরিয়ড ড্রামার প্রতি চিরায়ত আগ্রহ থেকে একটা ড্রিম কাস্ট তৈরির লোভ সামলাতে পারলাম না।

তরুণ বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অনির্বাণ ভট্টাচার্যকে আমার মনে ধরেছে। কারন সে ইতোমধ্যে ব্যোমকেশসহ আরো কিছু দৃঢ়, বলিষ্ঠ চরিত্রে অভিনয় করে নিজের জাত চিনিয়েছে। এই Nuance টা বঙ্গবন্ধুর বিপ্লবী, প্রতিবাদী একইসাথে প্রগাঢ়, উদাত্ত চরিত্র করার জন্য মানানসই হবে। অনেকে বলতে পারেন জাতির পিতার চরিত্রে ভারতীয় কেউ কেন। সেক্ষেত্রে বলতে পারি যে, আব্রাহাম লিংকনের চরিত্রও কিন্তু ব্রিটিশ অভিনেতা ড্যানিয়েল ডে লুইস পর্দায় পেশ করেছে। আর, বয়সকালের বঙ্গবন্ধু কে হবে সেটা ঠিক করতে পারিনি। অনির্বাণকে দিয়েও মেকআপের সাহায্যে করানো যেতে পারে।

আর, ইন্দিরা গান্ধীর চরিত্রে কঙ্গনার মত দৃঢ়চেতা একজন অভিনেত্রী দরকার। বয়সের পার্থক্য কমাতে মেকআপ নিশ্চয়ই কার্পণ্য করবে না।”

ফ্যাক্টওয়াচের অনুসন্ধানে আমরা পুরো কাস্টিংয়ের কোনোপ্রকার প্রমাণ খুঁজে পাইনি। তাই পুরো ব্যাপারটিকে মিথ্যা রেটিং প্রদান করা হলো।

 

  • Read in English

Total
34
Shares

Leave a Reply

fact-watch