ভুয়া ছবির ব্যবহার

বর্তমান সময়ের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া সংবাদে এবং তা দিয়ে অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলোর দৌড়ঝাঁপ দেখলে মনে পড়ে যায় শামসুর রহমানের কবিতার কথা “কান নিয়েছে চিলে, চিলের পিছে মরছি ঘুরে আমরা সবাই মিলে”।

সম্প্রতি এক বৃদ্ধ মায়ের ঘটনা নিয়ে হৃদয়বিদারক তোলপাড় সংবাদ ছড়ায় সামজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এই সংবাদের মূল রচয়িতা ব্যারিস্টার এস এম ইকবাল চৌধুরীর নামের এক ব্যক্তি (www.facebook.com/smequbal)। ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া তথ্য মতে ২৯ মার্চ বৃহস্পতিবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই ব্যক্তি পোস্ট করেন, ‘এক বিসিএস কর্মকর্তা তার ম্যাজিস্ট্রেট বউয়ের কথায় নিজের গর্ভধারিনী মাকে রেলস্টেশনে ফেলে রেখে যান’। যে সংবাদ খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সাথে পাল্লা দিয়ে দেশীয় অনলাইন সংবাদ মাধ্যমগুলো কোন তথ্য যাচাই না করেই শুধুমাত্র ফেসবুক পোস্টের ভিত্তিতে সংবাদ প্রচার করে।

তবে, এই সংবাদে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যের পাশাপাশি অনলাইন পোটালগুলো যে স্থিরচিত্র প্রকাশ করেছে তা সংশ্লিষ্ট ঘটনার সাথে যোগসূত্র স্থাপন করে না। ফ্যাক্ট ওয়াচের মাধ্যমে মূল ছবির সত্যতা মিলেছে। বৃদ্ধার ছবিটি নেওয়া হয় ‘সাটারস্টক’ নামের একটি অনলাইন ছবির ভান্ডার থেকে, যেখানে ১৩ জুন, ২০১৫ তারিখে ‘একটি আশ্রমের বিছানায় বসা একজন বয়স্ক ভারতীয় মহিলা’ শিরোনামে ছবিটি প্রকাশ করা হয়েছিল।

মূল রচয়িতা ব্যারিস্টার এস এম ইকবালের ফেসবুক প্রফাইলে গিয়ে বর্ণিত ঘটনা সম্পর্কিত কোন লেখা খুঁজে পাওয়া যায়নি। সত্যতা যাচাইয়ের জন্য তার সাথে ফেসবুকের মাধ্যমে ২ এপ্রিল সকালে ফ্যাক্টওয়াচ যোগাযোগ করে। তবে উত্তর মেলেনি, এবং একই সাথে, দুপুরের মধ্যে ফেসবুক প্রফাইলটি নিষ্ক্রিয় করে ফেলা হয়।

পরিশেষে, উপরোক্ত ঘটনার মূল সত্যতা পাওয়া যায়নি। তবে, প্রকৃত ঘটনার সন্ধ্যান পাওয়া গেলে হয়ত মিলে যেতে পারে শামসুর রহমানের কবিতার সাথে ‘কান যেখানে ছিল আগে সেখানটাতেই আছে। ঠিক বলেছে, চিল তবে কি নয়কো কানের যম? বৃথাই মাথার ঘাম ফেলেছি, পণ্ড হল শ্রম’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *