রেলের এই ভাঙা চাকার ছবিগুলো বাংলাদেশের নয়, ভারতের

Published on: June 4, 2024      

সম্প্রতি ভেঙ্গে দু’টুকরো হয়ে যাওয়া একটি রেলের চাকার ছবি সামাজিক মাধ্যমে বেশ ভাইরাল হয়েছে। ছবিটির পোস্টদাতাদের ভাষ্যমতে, এটি ভারত থেকে কেনা বাংলাদেশ রেলওয়ের একটি যাত্রীবাহী কোচের ভেঙ্গে যাওয়া চাকা! তবে ফ্যাক্টওয়াচ অনুসন্ধান করে দেখেছে, রেলের চাকা ভেঙ্গে যাওয়ার ঘটনাটি বাংলাদেশের নয়। বরং, গত ৩০ মে ২০২৪ এ ভারতের আসানসোলে একটি মালবাহী ট্রেনের প্রথম ইঞ্জিনের চতুর্থ চাকাটি ভেঙ্গে দু’টুকরো হয়ে যাওয়ার ঘটনার ছবি এটি। ভারতের মুম্বাই-ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিড ডে’র (Mid-day) ট্রান্সপোর্ট বিটের সাংবাদিক রাজেন্দ্র বি. আকলেকার (Rajendra B. Aklekar) তাঁর অফিসিয়াল এক্স (সাবেক টুইটার) হ্যান্ডেল থেকে রেলের ভাঙা চাকার ছবিগুলো শেয়ার করে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। সঙ্গত কারণে ফ্যাক্টওয়াচ সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিটির সাথে সংশ্লিষ্ট দাবিকে “বিভ্রান্তিকর” বলে সাব্যস্ত করছে।

 

অনুসন্ধান:

সামাজিক মাধ্যমে শেয়ারকৃত রেলের ভাঙা চাকা’র ছবিটির সাথে সংশ্লিষ্ট দাবিটি সঠিক কিনা তা যাচাই করতে আমরা উক্ত ছবিটি নিয়ে রিভার্স ইমেজ সার্চ পদ্ধতিতে অনুসন্ধান করি। অনুসন্ধানে রাজেন্দ্র বি. আকলেকার নামক একটি এক্স (সাবেক টুইটার) হ্যান্ডেল থেকে, যিনি নিজেকে মিড ডে’র সাংবাদিক হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন, গত ৩০ মে ২০২৪ এ প্রকাশিত দুটো ছবি পাওয়া গেছে যার সাথে আমাদের আলোচিত ছবি দুটোর বেশ মিল রয়েছে। রাজেন্দ্র বি. আকলেকার ছবিগুলো সম্পর্কে জানান, এগুলো একটি মালবাহী ট্রেনের লোকোমোটিভের (ইঞ্জিন) চাকা ভেঙে দু’টুকরো হয়ে যাওয়ার ছবি এবং ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রেলওয়ের আসানসোল বিভাগে। দুর্ঘটনা-কবলিত ট্রেনটি দুর্গাপুর স্টিল প্লান্ট থেকে বক্তারনগর যাচ্ছিল।

আসানসোলে সংঘটিত ট্রেন দুর্ঘটনাটি নিয়ে আর কোন তথ্য পাওয়া যায় কিনা সেটা খুঁজে দেখতে প্রাসঙ্গিক কিছু কি-ওয়ার্ড ব্যবহার করে গুগলে অনুসন্ধান করা হয়। অনুসন্ধানে ‘NEWS STATION’ নামক একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকে रेल इंजन पहिया टूटा, बड़ी दुर्घटना होते-होते बची | Loco Wheel Split Prompts Thorough Investigation – শিরোনামে একটি ভিডিও খুঁজে পাওয়া গেছে, যেখানে আমাদের আলেচিত রেলের ভাঙা চাকার ছবির অনুরূপ ছবি লক্ষ্য করা গেছে। ভিডিওটির বিস্তারিত বর্ণনা অংশে রাজেন্দ্র বি. আকলেকারের দেয়া তথ্যটিরই পুনরাবৃত্তি করা হয়েছে এবং এই দুর্ঘটনার পেছনের কারণ খতিয়ে দেখতে তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। 

উল্লেখ্য, রাজেন্দ্র বি. আকলেকারের পরিচয় নিশ্চিত হতে গিয়ে আমরা জানতে পেরেছি তিনি ভারতের মুম্বাই-ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম মিড ডে’র ট্রান্সপোর্ট বিটের সাংবাদিক এবং ভারতীয় রেলের ইতিহাস নিয়ে লেখা বেশকিছু বইয়ের লেখক। তাঁর উল্লেখযোগ্য কিছু বই হচ্ছে: ইন্ডিয়া’স রেলওয়েম্যান, অ্যা শর্ট হিস্টোরি অব ইন্ডিয়ান রেলওয়েজ, হল্ট স্টেশন ইন্ডিয়া, প্রভৃতি।

অতএব, উপরের আলোচনা থেকে স্পষ্ট বুঝা যাচ্ছে যে, সামাজিক মাধ্যমে শেয়ারকৃত ছবিটির সাথে সংশ্লিষ্ট দাবিটি সঠিক নয়। রেলের ভাঙা চাকার ছবিগুলো বাংলাদেশের নয়, বরং ভারতের।

বিভ্রান্তিকর দাবিতে ছড়ানো এমন কয়েকটি পোস্টের নমুনা দেখবেন এখানে, এখানে, এখানে, এবং এখানে

সুতরাং, সবকিছু বিবেচনা করে ফ্যাক্টওয়াচ সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিটির সাথে সংশ্লিষ্ট দাবিটিকে বিভ্রান্তিকর বলে সাব্যস্ত করছে।

এই নিবন্ধটি ফেসবুকের ফ্যাক্ট-চেকিং প্রোগ্রামের নীতি মেনে লেখা হয়েছে।।
এর উপর ভিত্তি করে ফেসবুক যে ধরণের বিধিনিষেধ আরোপ করতে পারে, সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানুন এখানে
এছাড়া এই নিবন্ধ সম্পর্কে আপনার মূল্যায়ন, সম্পাদনা কিংবা আরোপিত বিধিনিষেধ তুলে নেয়ার জন্য আবেদন করতে এই লিঙ্কের সাহায্য নিন।

কোনো তথ্যের সত্যতা যাচাই করতে আমাদেরকেঃ
ইমেইল করুনঃ contact@factwatch.org
অথবা ফেইসবুকে মেসেজ দিনঃ facebook.com/fwatch.bangladesh